বাংলাদেশে প্রথম ট্যুরিজম ভিত্তিক নিউজ পোর্টাল|রবিবার, জানুয়ারি ২০, ২০১৯
সাইটে আপনার অবস্থানঃ Home » তারুণ্যের কথা » ঢাবির সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে অনশন করছে শিক্ষার্থীরা

ঢাবির সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে অনশন করছে শিক্ষার্থীরা 

Print Friendly, PDF & Email

 

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ (ঢাবি) পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের দাবিতে আন্দোলন করছেন শিক্ষার্থীরা। এই আন্দোলনকারীদের অনেকেই জাতীয় শহীদ মিনারে অনশন চলাকালে অসুস্থ হয়ে পড়েন।আন্দোলনকারীদের দাবির সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করেছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না। এর আগে সংহতি প্রকাশ করেন সংবিধান প্রণেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন।du2

গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন ঢাবি ভিসির এই সিদ্ধান্তকে অগণতান্ত্রিক হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেছেন, তিনি একটি রাজতান্ত্রিক ফরমান জারি করেছেন, যা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। ইতোপূর্বে আরও কয়েকটি ছাত্র সংগঠন এই আন্দোলনের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করেছে।
অপরদিকে ভিসি তার অবস্থানে অনড় থেকে বলেছেন, ‘ছাত্ররা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমতি না নিয়ে শহীদ মিনারে আন্দোলন করছে, সে কারণে এই আন্দোলন অবৈধ।’ তিনি পুলিশ ডাকারও হুমকি দিয়েছেন।
ঢাবি কর্তৃপক্ষ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছুদের দ্বিতীয় দফায় ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে না দেওয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণার পর আমরা এই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসার জন্য আমাদের যুক্তি এবং পরামর্শ তুলে ধরেছিলাম। আমরা এই আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলাম যে, সাধারণ ছাত্ররা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আন্দোলনে যেতে পারেন। এ নিয়ে পুলিশি ব্যবস্থা এমনকি প্রাণহানির মতো ঘটনাও ঘটতে পারে।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃতী ছাত্র আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন আইনজীবী দেশের অন্যতম রাজনীতিবিদ ড. কামাল হোসেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিপি জনপ্রিয় ছাত্রনেতা নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহামুদুর রহমান মান্না ছাত্রদের দাবির সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করায় মনে হচ্ছে তাদের আন্দোলন ইতোমধ্যে বিবেকবান মানুষের নজরে এসেছে।
যেহেতু আন্দোলন খুবই যৌক্তিক, সেহেতু এর সঙ্গে রাজনৈতিক-অরাজনৈতিক সব ধরনের মানুষই সংহতি প্রকাশ করবে বলে আমরা মনে করি।
ছাত্রদের আন্দোলন ঢাকা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারকেন্দ্রিক হওয়ায় এখনও শান্তিপূর্ণভাবে এর ফয়সালা হওয়া সম্ভব বলে আমরা মনে করি। তবে শহীদ মিনার থেকে ঢাকার রাজপথ এবং সারাদেশে ছড়িয়ে পড়লে তখন তা ভিসি সাহেবের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে।
এ অবস্থায় ভিসির নিজের অবস্থানটিও নড়বড়ে হয়ে উঠতে পারে। আমরা আশা করি, তেমন কোনো পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার আগে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদের পূর্বের সিদ্ধান্ত বাতিল করে আন্দোলনের ইতি টানার ব্যবস্থা করবেন।

 

এই ক্যাটাগরীর অন্যান্য সংবাদ সমূহঃ

শেয়ার করুন !!Share on FacebookTweet about this on TwitterShare on Google+Share on LinkedInShare on RedditBuffer this pageDigg thisShare on TumblrPin on PinterestShare on StumbleUponFlattr the authorEmail this to someone