বাংলাদেশে প্রথম ট্যুরিজম ভিত্তিক নিউজ পোর্টাল|সোমবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২১
সাইটে আপনার অবস্থানঃ Home » জাতীয় » মাকে গৃহবন্দি! বৃদ্ধা আছিয়াকে হাইকোর্টে হাজির করার নির্দেশ

মাকে গৃহবন্দি! বৃদ্ধা আছিয়াকে হাইকোর্টে হাজির করার নির্দেশ 

Print Friendly, PDF & Email

165856cop_kalerkantho_pic25

রাজধানীর মিরপুরের আরামবাগে বড় ছেলের বাসায় ১০ বছর ধরে গৃহবন্দি বৃদ্ধা আছিয়া আক্তারকে আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টে হাজির করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আছিয়া আক্তারের বড় ছেলে রবিউল মোর্শেদ মিলনের প্রতি এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ওইদিন হাজির হয়ে মাকে আটকিয়ে রাখার বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে রবিউল মোর্শেদ মিলনের প্রতি নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দিয়েছেন। হাইকোর্টের আদেশের এই তথ্য মঙ্গলবার জানান রিট আবেদনকারীপক্ষের আইনজীবী ব্যারিস্টার তৌফিক ইনাম টিপু।

চার সন্তানের জননী বৃদ্ধা আছিয়া আক্তারকে ১০ বছর ধরে আটকে রাখার অভিযোগে ওই নারীর বড় ছেলের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন অপর তিন সন্তান। মাকে দেখার অনুমতি ও উদ্ধারের নির্দেশনা চেয়ে এ আবেদন করেন রাফসান মোর্শেদ ও পারভীন আক্তারসহ তিনজন।

অভিযোগে বলা হয়, মিরপুর আরামবাগ এলাকার বাসিন্দা বয়ো বৃদ্ধা আছিয়া আক্তারের দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে। ছোট ছেলে রাফসান মোর্শেদের বাসা থেকে ২০১১ সালের ২৭ মে তাকে নিজের বাসায় নিয়ে যান বড়ছেলে রবিউল মোর্শেদ মিলন। এরপর থেকে তিন-ভাইবোনকে মায়ের সঙ্গে কোনোভাবেই দেখা করতে দেননি রবিউল মোর্শেদ মিলন। মাকে দেখার চেষ্টা করলে তাদের গেট থেকে বের করে দেওয়া হয়। নিরুপায় হয়ে সংশ্লিষ্ট থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন এবং পুলিশের সহায়তায় দুইবছর আগে শুধুমাত্র দুইবার দেখা করার সুযোগ পান। এরপর আর তাদের দেখা করতে দেওয়া হচ্ছে না। মাকে অন্যান্য সন্তানের কাছ থেকে সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন করে গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে। তাদের মা অত্যন্ত অসুস্থ এবং তাকে পর্যাপ্ত চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে না।

এই আবেদনের ওপর শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট বৃদ্ধা আছিয়া আক্তারকে আদালতে হাজির করতে অন্তবর্তীকালীন নির্দেশনা দেন ও রুল জারি করেন।

শেয়ার করুন !!Share on FacebookTweet about this on TwitterShare on Google+Share on LinkedInShare on RedditBuffer this pageDigg thisShare on TumblrPin on PinterestShare on StumbleUponFlattr the authorEmail this to someone